Advertisement

অ্যান্ড্রয়েড ইউজাররা Clubhouse ব্যবহার করবেন ভাবছেন? হতে পারেন প্রতারণার শিকার

07:21 PM Feb 20, 2021 | Suman Patra

“সামনে যা দেখি জানি না সেকি আসল না নকল সোনা…”
– শ্রদ্ধেয় গায়ক মান্না দে-র গানের এই বিখ্যাত লাইনটি আমাদের রোজকার জীবনের বিভিন্ন ঘটনার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে আছে। তবে এই শব্দবন্ধনীগুলি শুধু বাস্তব জীবনের সাথেই নয়, দিনের বেশির ভাগ সময় আমরা যেখানে কাটাই – সেই ভার্চুয়াল দুনিয়াতেও একইভাবে প্রযোজ্য! আমরা প্রায়ই শুনে থাকি, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে অ্যাপ স্টোরে ঘুরে বেড়াচ্ছে শ’য়ে শ’য়ে ভুয়ো প্রোডাক্ট বা অ্যাপ। জাল ওয়েবসাইটের থেকে সচেতন থাকার বার্তাও হামেশাই সামনে আসে। সেক্ষেত্রে এবার আসল-নকলের বিতর্কে জড়িয়ে পড়ল ভয়েস-বেসড সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্ল্যাটফর্ম ক্লাবহাউস (Clubhouse)।

Advertisement

সাম্প্রতিক সময়ে নেটিজেনদের মধ্যে এই Clubhouse অ্যাপ্লিকেশনটিকে কেন্দ্র করে মাতামাতির শেষ নেই। এই সোশ্যাল অডিও অ্যাপটি গত বছর এপ্রিলে লঞ্চ হলেও, এতদিন পর্যন্ত ইউজারদের থেকে তেমন সাড়া পায়নি। কিন্তু হালফিল সময়ে এলন মাস্ক, মার্ক জুকারবার্গ বা ওপরাহ উইনফ্রে-র মত ব্যক্তিত্ব, প্ল্যাটফর্মটির প্রচার করা মাত্রই ব্যাপক হইচই পড়ে যায়। টেকক্রাঞ্চের (TechCrunch) রিপোর্ট অনুসারে, অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে ৮.১ মিলিয়ন বার Clubhouse অ্যাপটি ডাউনলোড হয়েছে।

সেক্ষেত্রে যারা অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস থেকে Clubhouse অ্যাপটি ব্যবহার করবেন ভাবছেন, তাদের বলে রাখি গুগল প্লে স্টোরে এখনও এই সোশ্যাল অডিও অ্যাপটি লঞ্চ হয়নি। কিন্তু এই অ্যাপটিকে কেন্দ্র করেই অ্যান্ড্রয়েড ইউজারদের বোকা বানানোর চেষ্টা করছে জালিয়াতরা। এই মুহূর্তে প্লে-স্টোরে ‘ক্লাবহাউস’ লিখে সার্চ করলে অনেকগুলি অ্যাপ দেখা যাচ্ছে, তাদের মধ্যে কোনো-কোনোটির লোগোও আসল প্ল্যাটফর্মটির লোগোর সাথে অনেকটাই মিলে যাচ্ছে। অথচ একটি ভালো করে খেয়াল করলেই নজরে পড়বে এই সমস্ত অ্যাপগুলির প্রতিটিরই ডেভলপার আলাদা। আসল ক্লাবহাউস অ্যাপটি যারা ডিজাইন করেছে সেই আলফা এক্সপ্লোরেশন কোম্পানির নাম এগুলির কোনোটাতেই নেই।

তবে বিড়ম্বনার এখানেই শেষ নয়! অ্যান্ড্রয়েড প্লে স্টোরে অনেক আগে থেকেই একই নামে একটি অ্যাপ রয়েছে যা প্রোজেক্ট ম্যানেজমেন্ট টুল হিসেবে ব্যবহৃত হয়, এবং এটির প্রচুর ইতিবাচক রিভিউ রয়েছ। সেক্ষেত্রে নেটিজেনদের একটা বড় অংশ সাত-পাঁচ না দেখে ওই অ্যাপটিকে জনপ্রিয় সোশ্যাল অ্যাপটির সাথে গুলিয়ে ফেলেন। কিন্তু ডাউনলোড করার পর স্বাভাবিকভাবেই তাদের চাহিদা পূরণ না হওয়ায়, সকলেই প্লে-স্টোরে ওই অ্যাপটির বিরুদ্ধে রেটিং দিয়ে বসেন। পরিস্থিতি এতই বেহাল হয়ে পড়ে যে চাপের মুখে পড়ে শেষমেশ এই প্রোজেক্ট ম্যানেজমেন্ট টুল অ্যাপটিকে প্লে-স্টোর থেকে তুলে নিতে বাধ্য হয় সংস্থাটি। এরপর কোম্পানিটি, সাধারণ মানুষের বিভ্রান্তি কাটাতে টুইটারে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে বিষয়টি বিস্তারিতভাবে সবার সামনে আনে। যদিও জল্পনা কাটিয়ে এখন প্লে স্টোরে ফের ফিরে এসেছে এই বহুল ব্যবহৃত অ্যাপটি।

এই প্রসঙ্গে বলে রাখি, সোশ্যাল অডিও প্ল্যাটফর্ম ক্লাবহাউসের ডেভলপাররা জানিয়েছেন যে তারা অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের জন্য এই অ্যাপ চালু করতে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে। ফলত, খুব শীঘ্রই প্লে-স্টোরেও এটি উপলব্ধ হবে। তবে ততদিন অবধি ফেক অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোড না করে অপেক্ষা করাই বাঞ্ছনীয়!

হোয়াটসঅ্যাপে খবর পেতে এখানে ক্লিক করুন

শেয়ার করুন
Advertisement